lifocyte.com

হস্থমৈথুন

হস্থমৈথুন বা তীব্র যৌন আকাঙ্ক্ষা দমনে হোমিওপ্যাথিক ঔষধ

যদি প্রবল যৌন আকাঙ্ক্ষা থাকে তবে তা সোরা কে নির্দেশ করে।  কিন্তু যদি অতি অস্বাভাবিক যৌন আকাঙ্ক্ষা থাকে, তবে তা অবশ্যই টিউবারকুলার মায়াজম কে নির্দেশ করে।  অতিরিক্ত সঙ্গম বা হস্তমৈথুন এর পিছনের মুল মায়াজম হলো টিঊবারকুলার মায়াজমা। এই টিউবারকুলার মায়াজমা এর প্রভাবের দ্ধারা এরা নিজেদের ধ্বংস বা মৃত্যু ডেকে আনে। টিউবারকুলার এর অপর নাম যক্ষ্মা বা ক্ষয় ,এবং সিফিলিসের অপর নাম ধ্বংস ।  টিউবারকুলার মায়াজম একা আসে না সিফিলিস ডেকে নিয়ে আসে টিউবার কুলার মায়াজমকে। তাই মায়াজমিক ধারণায় হস্থমৈথুনের পরিণতি ধ্বংস ।

 

হস্থমৈথুন দমনে ঔষধ

 

টিউবারকুলিনামঃ

যেহেতু টিউবারকুলার মায়াজমের রোগীদের হস্থমৈথুন প্রবণতা প্রবল তাই টিউবার কুলিনাম দুই এক মাত্রা দিয়ে চিকিৎসা দিলে তা সমূলে বিনষ্ট হতে পারে বা মানসিক পরিবর্তন করে দিতে পারে ।

মেডরিনামঃ

মিশ্রমায়াজমিট কারণে যৌন বিকৃতি ঘটে থাকে , আর বিকৃত যৌন চাহিদা চিরতার্থ করতেই যুবক যুবতিরা  হস্থমোইথুনের মত ধ্বংসাত্মক কাজে লিপ্ত হয় । এদের জন্য চিকিৎসা চলাকালে মেডোরিনাম ১০ এম এক মাত্রা দিয়ে অনেকের মানসিক বিকৃতির মাত্রা কমে যেতে দেখেছি । আমার লেখা মেডোরিনামের যৌন বিকৃতির স্বরুপ পড়ুন বিস্তারিত জানতে পারবেন ।

ক্যান্থারিসঃ

মাদারটিংচার কুমারি মেয়েদের যৌন উত্তেজন বৃদ্ধিতে  মারাত্মক প্রভাব ফেলে , কিন্তু এর ২০০ শক্তি সপ্তাহে একদিন সেবন করলে তা প্রবল কামোত্তেজনাকে স্বভাবিক অবস্থায় ফিরে আনে ।

প্ল্যাটিনা :

বিষণ্ণ ও মন মরা প্রকৃতির , শীর্ণতা , মৃগীরোগের ন্যায় আক্ষেপ বা খেঁচুনি ।প্রায়ই সজ্ঞান থাকে ; চক্ষু কোটরাগত এবং হরিদ্রাভ চর্ম , মুখ বিবর্ণ ও চুপসান । কিশোরদিগের হস্ত-মৈথুনের কুফলে ইহা একটি বিশিষ্ট ঔষধ । বিশেষ করে অহংকারী , জিহ্বা উল্টিয়ে কথা বলা মেয়েদের বেলায় অধিক কার্যকর ।

 

অরগেনামঃ নিম্ন শক্তি প্রবল হস্থমৈথুন প্রণতা কমিয়ে অনেকটাই স্বাভাবিক করে তোলে । বিশেষ করে  যে সকল মেয়েরা কামুক কল্পনা দমন করতে পারে না তাদের প্রতি দিন সকাল বিকাল ৬ শক্তি কিছুদিন সেবন করলে এই কুচিন্তা দূর হয়ে  যায় ।

 

মিউরেক্সঃ যদি কোনোভাবে জানতে পারেন যে রোগিণীর গায়ে হাত দিলে কামোত্তেজনায় অস্থির হয়ে উঠে ।  মাঝে মাঝে কানোন্মাদ হয়ে জ্ঞানহীন হয়ে আসংলগ্ন কথা বলে এমন রোগিণীর জন্য মিউরেক্স ৩০ শিক্তি দিনে দুই বার সেব্য ।

 

এসিড ফ্লোরঃ পুরুষের কামোন্মাদে  এই ঔষধ খুবই কার্যকর । যে সকল চেলেদের নিকট বৃদ্ধা যুবতি বা শিশু যেকোনো স্ত্রীলোক দেখলেই মনে মনে কুচিন্তা করতে থাকে তাদের জন্য এসিড ফ্লোর অমোঘ । বত্ত্রমানে স্কুল কলেজে পড়ুয়া ছাত্র যারা স্মার্ট ফোনে বেশি বেশি দক্ষ তাঁদের জন্য এই ঔষধকে একবার স্মরণ করতেই হয় । কামোন্মাদয়ান জনিত এদের মুখে ব্রোণ দেখা দিলেও  এসিড ফ্লোর সর্বাগ্রে । ২০০ বা ১ম দুই -চার মাত্রাতেই মানসিকার পরিবর্তন হলে , হস্থমৈথুন করা থেকে আপনা আপনি  ফিরে আসবে ।

 

এসিড পিক্রিকঃ  এটিও ছেলেদের জন্য অতুলনীয় একটি ঔষধ যা হস্থমৈথুন ও বিকৃত যৌনচাহিদার মানসিকতার পরিবর্তনে সহায়ক । ২০০ বা ১ম দুই -চার মাত্রা

 

ষ্টেনাম মেট:   হস্ত-মৈথুনের কুফলে পক্ষাঘাত হলে সেই পক্ষাঘাতের রোগীর চিকিৎসায় ষ্টানাম মেট জরুরী।

 

#ষ্টেফিসেগ্রিয়া:

ইহা স্ত্রীলোক ও পুরুষদিগের হস্ত-মৈথুনের কুফলে অপর একটি শ্রেষ্ঠ ঔষধ । স্ত্রীলোকের সাথে চলাচল করতেই অধিক পছন্দ করে ।  সঙ্গম ইচ্ছে  বা ইন্দ্রিয়সেবা যাদের প্রধান পরিচয় তাদের জন্য স্টাফিসেগ্রিয়া খুবই কার্যকর ।  পুরুষদিগের অতিশয় শীর্ণতা, চক্ষুর চতুর্দিকে কালিমা চক্র, বিবর্ণ ও পিঙ্গলাভ মুখ, বিশেষ লাজুক ও খিটখিটে প্রকৃতির এবং বিষণ্ণ । নিঃসঙ্গতা ভালবাসে এবং স্ত্রীলোক সম্বন্ধে লাজুক । স্ত্রীলোকদিগের গর্ভাশয় বা ডিম্বকোষ সংক্রান্ত লক্ষণাদি ।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *