lifocyte.com

হিপার সালফ (Heper sulph)- মেটেরিয়া মেডিকার পরশপাথর

  1. হিপার সালফ

হিপার   হোমিওপ্যাথির একটি গুরুত্বপূর্ণ ঔষধ। হোমিও ঔষধ হচ্ছে একক ঔষধের সূক্ষ্মমাত্রা  অপর দিকে প্যাটেন্ট বা কম্বিনেশন ঔষধ হচ্ছে অনেকগুলো সূক্ষ্মমত্রার ঔষধের মিশ্রণে। অর্গাননের মতে প্যাটেন্ট  মূলত এলোপ্যাথিক চিকিৎসার সামিল। অপরদিকে  হিপার সালফ হচ্ছে ক্যালকেরিয়া কার্ব ও সালফারের মিশ্রণের সূক্ষ্মমাত্রা। যা অর্গানন সমর্থিত।  Heper sulph নিম্নশক্তি ফোড়পাকাতে, পূঁজ উৎপাদনে অদ্বিতীয়া ( সাইলেসিয়া)। 

হিপার সালফ এর প্রয়োগ

যেখানে কোনো রোগীর মধ্যে ক্যালকেরিয়া কার্ব ও সালফারের মিশ্র লক্ষণ দেখা যায় সেখানে  হিপার সালফ অগ্রাধিকার। দুইটি লক্ষণ সমদৃষ্টে ক্যালকেরিয়া প্রয়োগ করে কিছুদিন পর সালফার  অথবা পর্যাক্রমে প্রয়োগ ফলাফল আশানুরূপ হয় না।তাই মেটেরিয়া মেডিকা থেকে হিপারের লক্ষণ মিললে কয়েক মাত্রাতেই আরোগ্য হ।

স্পর্শকাতরতায় হিপার সালফ

স্পর্শকাতরতা কয়েকটি ঔষধের( মেডরিনাম, আর্নিকা)  মধ্যে পাওয়া যায় এর মধ্যে হিপার অন্যতম।একদিন এক রোগিণী (৩৫) আসল তার স্তনে টনটনে বেদনা, মনে হচ্ছে ভিতরে ফোড়া উঠেছে। সে হাটেতেও পারছে না। সামন্য নড়তেই প্রচন্ড যন্ত্রণা পাচ্ছে। আমি কিছু লক্ষণ নিয়ে তাকে একমাত্রা হিপার সালফ মুখে দেয়ার ৫/১০ মিনিট পরে রোগী বাড়িতে পৌছেই তার সেই তীব্র যন্ত্রণাঅনুভূতি ভুলেই গেছে। কয়েকদিন হিপার সালফ ২০০ সেবনে সুস্থ হয়েছে।

অন্য এক রোগিণীর(৪৫) স্তনে ফোড়া ফেটে যাওয়ার উপক্রম  কিন্তু ফাটছে না তাকে হিপার সালফ ৩x দিনে ৪ বার প্রয়োগ করি কয়েকদিন প্রচুর পূঁজ উৎপাদ হয়ে সম্পূর্ণ সুস্থ। উল্লেখ্য দেশি কোম্পানির হিপার সালফ  দিয়েছিলাম।

বিভিন্ন রোগে হিপার সালফ

নোখকুনী, ফোড়া, বাগী,কানপাকায় হিপার সালফ চমৎকার ক্রিয়া দর্শায় যদি স্পর্শকাতরতা থাকে। আমি অনেক কানপাকা রোগীতে হিপার সালফ ২০০ দিয়ে নির্মুল হতে দেখেছ। বিশেষ করে শিশুদের কান থেকে গাঢ় হরিদ্রা বর্ণের পূঁজ এবং কানের নিকট হাত স্পর্শ করতেই দেয় না, স্পর্শ করলেই কেদে ফেলে। তার জন্য Heper sulph অমোঘ।

  • পূঁজ জন্মিবার পূর্বে দপদপানি কান বেদনায় হিপার সালফ খুবই উপকারি।
  • ঘুংড়ী কাশি রাত্রি ১২ টার পরে বা শেষ রাত্রিতে বৃদ্ধিতে হিপার।
  • চক্ষুর পাতা প্রদাহ ফোলা, চোখে অঞ্জিনা ও পূজ হলে হিপার বিশেষ করে ঠান্ডাজল লাগ্লে যন্ত্রবা বৃদ্ধি ( ঠান্ডা জলে উপশম মার্কসল) হলে হিপার সালফ।
বিবিধ বিষয়
  • উদারময়, গ্যাংরিন ইত্যাদিতে এর প্রভাব বিদ্যমান।,
  • বৃদ্ধিঃ  শীতল বাতাস, শীতল দ্রব্য পানাহারে, আক্রান্ত পার্শ্বে শয়নে,অনাবৃত দেহে।
  • উপশমঃ গরমে, বস্ত্রাবৃত থাকিলে উপশম।
  • অম্ল ও কটু খাদ্যে ইচ্ছে, খিটখিটে ও ক্রুদ্ধ মেজাজ, সবকাজই দ্রুততাত সাথে করা এর চারিত্রিক লক্ষণ।

টিউবারকুলিনাম ব্যাসিলিনাম -এর একডোজের অবিশ্বস্য ক্রিয়া

আর্নিকা ও ক্যান্থারিস – একডোজ হোমিওপ্যাথির অবিশ্বাস্য ক্রিয়া

কাতরতা দিয়ে হোমিও ঔষধ নির্বাচন ও ফ্রি পিডিএফ

 

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *